মমর প্রশ্ন এবং ভক্তের উত্তর

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত গুনী অভিনেত্রী জাকিয়া বারী মম বিগত বেশ কয়েকবছর যাবত ধরেই ভালো ভালো গল্পের চ্যালেঞ্জিং চরিত্রে অভিনয় করে আসছেন। গৎবাঁধা গল্পের নাটকে তাই আর দেখা মিলেনা মম’র।

অভিনয় জীবনের একযুগেরও বেশি সময় ধরে বহুমাত্রিক চরিত্রে অভিনয় করার পরও মম’র নিজের মনে আরো অনেক ভিন্ন ধরনের চরিত্রে কাজ করার প্রবল ইচ্ছে রয়েছে। তবে দর্শকের কাছ থেকেও তার জানার আগ্রহ রয়েছে, কী ধরনের চরিত্রে দর্শক তাকে বেশি দেখতে আগ্রহী।

আর এটা জানার জন্যই গেলো ৮ জুন রাতে জাকিয়া বারী মম তার ফেসবুক ওয়ালে তার ভক্ত দর্শকের উদ্দেশ্যে একটি প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছিলেন। প্রশ্নটি ছিলো ‘আমাকে কোন ধরনের গল্পে এবং কোন ধরনের ক্যারেক্টারে অভিনয় করতে দেখতে চান সিরিয়াসলি’।

মম’র এমন স্ট্যাটাসের উত্তরে শতাধিক ভক্ত দর্শক এবং সাংবাদিক মম’কে ঘিরে তাদের ইচ্ছের কথা জানান দিয়েছেন। সাংবাদিক দাউদ হোসেন রনি তাকে কাহানি সিনেমার বিদ্যা বালানের চরিত্রটির মতো নতুন কোন চরিত্রে তাকে অভিনয়ে দেখার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

আবার অভিনেত্রী শিল্পী সরকার অপু তাকে অসহায় বাঙ্গালী নারীর চরিত্রে, নাট্যকার মেজবাহ উদ্দিন সুমন তাকে ‘কাঁচের পুতুল’ ধারাবাহিকের লতার মতো চরিত্রে, সঙ্গীতশিল্পী লোপা তাকে শেষের কবিতার লাবণ্যের চরিত্রে, নির্মাতা তপুন খান বেগম জান চরিত্রে, গীতিকার অনুরূপ আইচ বাণিজ্যিক ধারার সিনেমায় মারদাঙ্গা চরিত্রে, অভিনেতা রওনক হাসান তাকে নানানরূপে, নানান রঙ্গে, নানান বেশে দেখতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

আবার নবী মুরাদ নামের একজন মমকে রানী সরকার, রওশন জামিল, ফেরদৌসী মজুমদারদের মতো চ্যালেঞ্জিং চরিত্রে অভিনয়ে দেখতে চান।

সঙ্গীতা পাল নামের একজন মমকে ‘বরফি’র প্রিয়াংকা চোপড়ার মতো চরিত্রে, তানভীর খান তাকে মহিলা ডন চরিত্রেসহ আরো অনেকেই মম’কে ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রে অভিনয়ে দেখার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

অনেকেই আবার বলেছেন যে মম’ যেই চরিত্রেই অভিনয় করেন সেই চরিত্রেই তিনি মানান’সই। সকল পাঠক ভক্তদের বিভিন্ন কমেন্টস’র প্রত্যুত্তরও দিয়েছেন মম।

মম বলেন, ‘আমাকে ঘিরে আমার ভক্ত দর্শকের এতো আগ্রহ এটা আসলে এই পোস্টটি না করা হলে জানাই হতোনা। আমাকে নানান ধরনের গল্পে দর্শক নানানরূপে দেখতে চান, এটা আমার জন্য অনেক বড় অনুপ্রেরণা।

যদিও আমি এখন গল্প নির্বাচনে অনেক চুজি এবং চরিত্র নির্বাচনে ঠিক তাই তারপরও এখন থেকে এসব ক্ষেত্রে আরো অনেক বেশি সিরিয়াস হবো। কারণ দর্শক ভক্তের কারণেই আমি আজকের জাকিয়া বারী মম।

তাই আগামীদিনগুলোতে আরো ভালো ভালো গল্পের নাটকে কাজ করার প্রবল ইচ্ছে রয়েছে আমার নিজেরও। অনেক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা যারা আমাকে তাদের আগ্রহ প্রকাশ করে আমাকে দিক নির্দেশনা দিয়েছেন।

আমি আমাকে ঘিরে সবার ভাবনা মাথায় রাখবো। তবে এখনতো আসলে প্রেক্ষাপট বদলে যাচ্ছে। দেখা যাক সামনে দর্শকের আশা কতোটা পূরণ করতে পারি।’

তৌকীর আহমেদ পরিচালিত ‘দারুচিনি দ্বীপ’ সিনেমায় অভিনয় করেই মম প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন। পরবর্তীতে তিনি শিহাব শাহীনের ‘ছুয়ে দিলে মন’, রায়হান রাফি’র ‘দহন’, অরুণ চৌধুরীর ‘আলতাবাণু’, তানিম রহমান অংশু’র ‘স্বপ্নের ঘর’ সিনেমাতে অভিনয় করেন।

ঘাটাইল টাইমস/আর 

নিউজ ডেস্ক

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Next Post

এশিয়া কাপ শ্রীলঙ্কায়

বুধ জুন ১০ , ২০২০
২০১৮ সালে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের (এসিসি) সভায় নির্ধারিত হয় চলতি বছরের এশিয়া কাপ আয়োজিত হবে পাকিস্তানে। তবে পাকিস্তানের মাঠে খেলা হলে ভারত এশিয়া কাপ বয়কট করতে পারে বলে কথা ওঠে। ফলে টানা দ্বিতীয়বারের মতো সংযুক্ত আরব আমিরাতে আয়োজিত হবে এশিয়া কাপ এমন সম্ভাবনা ছিল। তবে করোনাভাইরাসের কারণে পাশার দান উলটে […]