ঘাটাইল পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর হিসেবে ৯নংওয়ার্ডবাসী দেখতে চায় মিল্টনকে !

ঘাটাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি:

টাঙ্গাইলের ঘাটাইল পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডে যিনি জনকল্যানে সব সময় কাজ করে যাচ্ছেন তিনি হলেন ঘাটাইল পশ্চিম পাড়া শ্যামলী এলাকার তরুন সমাজসেবক, জনদরদী,  দল ও কর্মী এবং জনবান্ধব নেতা  মো.মিল্টন হোসেন  । ৯নং ওয়ার্ডবাসী মনে প্রাণে মিল্টনকে ভালবাসেন, কারণ তিনি সব সময় অবিচল অন্যায়ের বিরুদ্ধে, সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে।

তিনি অন্যায়ের সাথে আপোষ করেন না। দলমত নির্বিশেষে কোন লোক বিপদে পড়লে খবর পেলে সমাজ সেবক মিল্টন ছুটে যান বিপদগ্রস্ত লোকটির কাছে, তিনি সাধ্যমত চেষ্টা করেন বিপদ থেকে মুক্ত করতে। কারণ তিনি মানুষকে অত্যন্ত ভালবাসেন। তিনি গরীর মানুষকে সাধ্যমত আর্থিক সাহায্য সহযোগিতা করছেন। এলাকাবাসী যে কোন সমস্যা বুদ্ধি পরামর্শসহ যে কোন সামাজিক বিষয়সহ মিল্টনের সাথে অনায়াসে তার বাসায় দেখা করতে পারছেন, কথা বলতে পারছেন, মন খুলে সুখ দুঃখের কথা বলতে পারছেন। তিনি মানুষকে মূল্যায়ন করেন বলেই মানুষ আসন্ন ঘাটাইল পৌরসভা নির্বাচনে ৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হিসেবে দেখতে চায় মিল্টনকে।

এলাকাবাসীরা বলেন,মিল্টন একজন যোগ্য লোক। তার নেই কোন লোভ লালসা। যতদিন বাঁচবেন ততোদিন তিনি জনকল্যানে কাজ করে যাবেন বলেন জানালেন এক আলাপচারিতায় ওয়ার্ডের একাধিক বাসিন্দা। মানুষকে তিনি যথেষ্ট মূল্যায়ন করেন। এলাকার ধর্মীয়, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনেও তার রয়েছে যথেষ্ট ভূমিকা। অত্যন্ত ন্যায় ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি শুধু সন্ত্রাস, অনিয়ম, অত্যাচার-জুলুম, নির্যাতন ও মাদকের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন। যার কারণে এলাকাবাসী তাকে মনপ্রাণ দিয়ে ভালবাসেন। ৯নং ওয়ার্ডবাসীর ভালবাসা ও দোয়া নিয়ে তিনি এবার তিনি ৯নং ওয়ার্ডবাসীর অনেক দিনের চাওয়া ও আকাঙ্খা পূরণ করার জন্য, সেবা করার জন্য কাউন্সিলর হিসেবে প্রতিদ্বন্ধিতা করবেন বলে জানা গেছে। জনগনের মূল্যবান ভোটে কাউন্সিলর নির্বাচিত হলে তিনি ৯নং ওয়ার্ডকে একটি মডেল হিসেবে গড়ে তুলবেন এটাই ওয়ার্ডবাসীর প্রত্যাশা। মিল্টন জনগনের আন্তরিক দোয়া ভালবাসা এবং মূল্যবান ভোটে কাউন্সিলর নির্বাচিত হলে এলাকার সার্বিক উন্নয়ন করবেন, মাদকমুক্ত, চাঁদাবাজমুক্ত সমাজ গঠন করবেন এটাই জনগনের প্রত্যাশা। ওয়ার্ডবাসীর জন্য তার দ্বার সব সময় খোলা। ৯নং ওয়ার্ডবাসীকে সঙ্গে নিয়ে এবং তাদের সার্বিক সহযোগিতায় ও উৎসাহ উদ্দিপনায় এলাকার উন্নয়নে তিনি সর্বাত্মকভাবে কাজ করে যাবেন। সরেজমিনে ৯নং ওয়ার্ডে বিভিন্ন পাড়ামহল্লায় ঘুরে এলাকাবাসীর সাথে আলাপকালে তারা বলেন, আমরা নিষ্ঠাবান দল ও কর্মী এবং জনবান্ধব নেতা মিল্টনকে মূল্যবান ভোট দিয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত করবো, এলাকার উন্নয়নের জন্য ও এলাকাবাসী শান্তির জন্য। তারা আরও বলেন, মিল্টন এলাকার উন্নয়ন করেছেন, মসজিদ – মাদ্রাসার ও উন্নয়ন করেছেন, গরীব দুঃখী মানুষকে আর্থিক সাহায্য, অসুস্থ লোককে চিকিৎসা করানোর সাহায্য, ওয়াজ-মাহফিলে, সামাজিক সংগঠনে সাধ্যমত আর্থিক অনুদান দিচ্ছেন। তারা আরও জানায়, মিল্টনের জনপ্রিয়তা ব্যাপক। সমাজ সেবক জনদরদী মিল্টনের চলার সাথী হচ্ছেন ওয়ার্ডবাসী। আগামী পৌরসভা নির্বাচনে ৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হিসেবে মিল্টনকে পেতে চায় ওয়ার্ডের সর্বস্তরের মানুষ। তার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে কিছু স্বার্থান্বেষী মহল তাকে নিয়ে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচারে লিপ্ত। কিন্তু কোনো ষড়যন্ত্র মিল্টনকে ন্যায়ের পক্ষ ও জনগণের কাছ থেকে দূরে সরিয়ে রাখতে পারবে না। জনগণের কল্যাণে তিনি অতীতের মতো বর্তমানে এবং ভবিষ্যতেও রাজপথে থাকবেন।

এ ব্যাপারে মিল্টন বলেন, আমি জনগনের সেবক, আমি জনগনের সেবা করার মাধ্যমেই বেঁচে থাকতে চাই।৯নং ওয়ার্ডবাসী যাকে ভাল লাগবে, যে উন্নয়নমূলক কাজ করতে পারবে, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও মাদক ব্যবসা বন্ধ করতে পারবে, ওয়ার্ডকে মডেল হিসেবে গড়ে তুলতে পারবে তাকেই মূল্যবান ভোট দিয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত করবেন এটাই তিনি প্রত্যাশা করেন। জনগণই ঠিক করবেন তাদের মূল্যবান ভোট দিয়ে কাউন্সিলর কাকে নির্বাচিত করবেন। তিনি আরও বলেন আমি আমার ওয়ার্ডবাসীর ভালবাসায় সিক্ত। জনগনের ভালবাসার মধ্যেই এবং জনগনের সেবা করেই বাকিটা জীবন পার করতে চান গরীবের বন্ধু বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক জনদরদী মিল্টন।

 

(ঘাটাইল টাইমস নিজেস্ব প্রতিনিধি)

 

নিউজ ডেস্ক

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।